এইচএসসি রেজাল্টে কেউ ক্ষতিগ্রস্ত হবে না

এবারের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ‘অটোপাস’ দেয়ার কারণে কোন শিক্ষার্থী যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেটিকে মাথায় রেখেই কাজ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ফলাফল প্রস্তুত কমিটির সদস্য ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর নেহাল আহমেদ। রবিবার (১৩ ডিসেম্বর) রাতে এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রস্তুত কমিটির বৈঠক সম্পর্কে জানতে চাইলে এ কথা জানান তিনি। প্রফেসর নেহাল আহমেদ বলেন, এইচএসসি’র রেজাল্ট প্রস্তুত করতে গিয়ে নানা রকম সমস্যা দেখা দিয়েছে। এই সকল সমস্যা সমাধানে টেকনিক্যাল কমিটি কাজ করছে। সমস্যা যতই থাকুক শিক্ষার্থীদের ফলাফলে যেন কোনো খারাপ প্রভাব না পড়ে সেদিকে খেয়াল রেখেই রেজাল্ট প্রস্তুত করা হচ্ছে।

কবে ফলাফল প্রকাশ করা হবে? জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন, রেজাল্ট প্রস্তুতের কাজ এগিয়ে চলছে। তবে নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না যে কবে নাগাদ ফলাফল প্রকাশ করা হতে পারে। শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী চলতি মাসের মধ্যেই ফল প্রকাশ করা হবে বলেও জানান তিনি। জানা গেছে, গ্রেড মূল্যায়ন টেকনিক্যাল কমিটি ফল তৈরি করতে জিপিএ গ্রেড নির্ণয়ের রূপরেখা করে দেয়া প্রতিবেদনের আলোকে নীতিমালা করা হয়েছে। ‘অটো পাসে’ পরীক্ষার্থীদের গ্রেড নির্ণয় করতে আট সদস্যের টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে আট সদস্যের কমিটিতে ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে সদস্য সচিব করা হয়েছিল। কমিটিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বুয়েট, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতরের প্রতিনিধি এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে সদস্য রাখা হয়। প্রাপ্ত তথ্যমতে, এবারের এইচএসসি ও সমানের পরীক্ষায় প্রায় ১৪ লাখ পরীক্ষার্থীর অংশগ্রহণ করার কথা ছিল। তাদের মধ্যে বিগত এইচএসসি পরীক্ষায় এক বিষয়ে অকৃতকার্য হয়েছিল এক লাখ ৬০ হাজার ৯২৯ জন। আর দুই বিষয়ে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৫৪ হাজার ২২৪ জন। এক বিষয়েও পাস করতে পারেননি এমন ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা ৫১ হাজার ৩৪১ জন। তবে এবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা না হওয়ায় সবাই পাস করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *